সংবাদ শিরোনাম
Home / জীবনধারা / মাথায় ব্যথা হলে যা করবেন!

মাথায় ব্যথা হলে যা করবেন!


অনলাইন ডেস্কঃ দৈনন্দিন জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে তার নাম মাথা ব্যথা। ছোট বড় প্রায় সকলেই নানা কারণে বিভিন্ন সময়ে মাথা ব্যথায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন। অনেকেই আবার ভুগে থাকেন মাইগ্রেনের সমস্যায়।
ব্যথা দূর করার জন্য অনেকেই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়ে থাকেন, অনেকে আবার ব্যথানাশক ঔষধ খেয়ে থাকেন। কিন্তু আপনি জানেনে কি? খুব সহজে কিছু প্রাকৃতিক উপায়ে এই মাথাব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

আসুন জেনে নেই কীভাবে দূর করবেন মাথা ব্যথাঃ

মনকে বিশ্রাম দিন-দুশ্চিন্তা কমাতে হবে, পেশাগত মানসিক চাপ ঘরে বয়ে আনা যাবে না। মনকে বিশ্রাম দিন, ঘরে ফিরে মাথা থেকে কাজের কথা বাদ দিয়ে একান্ত কিছু সময় কাটান।

ছয় ঘণ্টা ঘুম-গবেষকেরা দেখেছেন ঠিকমতো ঘুম না হলে অনেকেরই মাথায় ব্যথা হতে পারে। প্রতিদিন কমপক্ষে ছয় ঘণ্টা ঘুম প্রয়োজন। পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন।

অন্ধকার শব্দহীন ঘরে-ঠাণ্ডা পানিতে শরীর ধুয়ে ফেলুন, স্নিগ্ধ মনে বিছানায় যান। অন্ধকার শব্দহীন ঘরে একটা আরামের ঘুম দিন, পরের দিন মাথাব্যথা থাকবে না।

যোগ ব্যায়াম-যারা নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করেন, তারা ব্যথায় আক্রান্ত হন কম। লম্বা করে গভীর শ্বাস নিন, আস্তে আস্তে ছেড়ে দিন ধীরে ধীরে এমন শ্বাস প্রশ্বাসের সাথে সাথে মন শান্ত হয়ে আসে, সঙ্গে মাথাব্যথাও কমতে থাকে।

দীর্ঘক্ষণ টিভি দেখা-দীর্ঘক্ষণ টিভির দিকে তাকিয়ে থাকবেন না। মাঝ মাঝে বিরতি নিন, চোখে পানির ঝাপটা দিয়ে আসুন। যারা টানা বই পড়ে তাদের জন্যও একই কথা এছাড়া উচ্চ শব্দ, উজ্জ্বল আলো, দীর্ঘ ভ্রমণে মাথায় ব্যথা হতে পারে, এগুলোর বিষয়ে সচেতন থাকুন

ধূমপান-ধূমপান ও ধূমপায়ী থেকে দূরে থাকুন। নিয়মিত ধুমপানে আসক্ত ও তাদের আশে পাশে যারা থাকেন তাদের মাথাব্যথা বেশি হয়।

আদা ও আদা চা-মাথা ব্যথা উপশমে আদার জুড়ি নেই। কারণ আদায় রয়েছে ‘প্রোস্টাগ্ল্যান্ডিন সিনথেসিস’ যা অ্যাসপিরিন অ ব্যথানাশক ঔষধে ব্যবহার করা হয়। তাই মাথা ব্যথা শুরু হলে সামান্য আদা ছিলে নিয়ে চিবনো শুরু করুন।

কাঠবাদাম খাওয়ার অভ্যাস রাখুন-অনেক সময় আবহাওয়া, ধুলোবালির কারণে মাথা ব্যথা শুরু হয়ে যায়, আবার অনেক সময় মানসিক চাপের কারণেও মাথা ব্যথা শুরু হয়।

এই সকল ধরনের ব্যথা কমানোর জন্য একমুঠো বা দুইমুঠো কাঠবাদাম চিবিয়ে খান। কাঠবাদামে রয়েছে ‘স্যালিসিন’ যা ম্যথা ব্যথা উপশমে কাজ করে রবং দ্রুত ব্যথা নিরাময় করে। অতিরিক্ত সমস্যা হলে প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শে ওষুধ নিতে পারেন। ইচ্ছেমতো ব্যথানাশক ওষুধ গ্রহণ করা যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*